ঢাকা,বাংলাদেশ

lutfor@firstaidforhealth.com

দ্রুত যোগাযোগ

আইবুপ্রোফেন এর ব্যবহার,পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া ও উপকার

Category Tags


আমবাত কেন হয় আমবাতের কারণ ও চিকিৎসা আর্টিকেরিয়ার চিকিৎসা কান পাকা ড্রপ কান পাকা বা মধ্যকর্ণের প্রদাহ কান পাকা রোগের এন্টিবায়োটিক কান পাকা রোগের ঔষধের নাম কান পাকা রোগের ঘরোয়া চিকিৎসা কান পাকা রোগের ড্রপের নাম কানে পুঁজ হলে করনীয় কানের ড্রপ এর নাম কিডনির পাথর প্রতিরোধের উপায় ও চিকিৎসা কিডনির পাথরের লক্ষণ কোষ্ঠকাঠিন্য কি খেলে ভালো হয় কোষ্ঠকাঠিন্য কেন হয় কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করার উপায় কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করার ঘরোয়া উপায় ক্ষুধামন্দা কেন হয় খাদ্যে বিষক্রিয়া হলে করণীয় খাবারে অরুচি হলে করনীয় চর্ম রোগ চর্ম রোগের ঔষধের নাম চর্ম রোগের চিকিৎসা চর্ম রোগের প্রকারভেদ টনসিলাইটিস এর চিকিৎসা পিরিয়ডের ব্যথা কমানোর উপায় পুড়ে গেলে ঘরোয়া চিকিৎসা পোড়া ক্ষত শুকানোর ঔষধ পোড়ার জ্বালা কমানোর উপায় বাত ব্যাথার ঔষধের নাম বাত ব্যাথার চিকিৎসা বাত রোগের কারন বাতের ব্যথার লক্ষণ বিষক্রিয়া কত প্রকার বিষক্রিয়া কাকে বলে বিষক্রিয়ার প্রাথমিক চিকিৎসা বিষক্রিয়ার লক্ষণ বিষক্রিয়ার চিকিৎসা ও করণীয় মাসিকের ঔষধের নাম মাসিকের ব্যাথার কারন মাসিকের সময় পেটে ব্যাথার ঔষধ মিনি স্ট্রোক এর লক্ষণ হার্ট এটাক এর কারণ হার্ট এর ঔষধ হার্ট ব্লক হওয়ার লক্ষণ

আইবুপ্রোফেন (Ibuprofen) এর উচচ মাত্রার প্রদাহরোধী,জ্বর নিবারক ও বেদনানাশক কার্যকারিতা রয়েছে। বেদনানাশক কার্যকরী প্রান্তীয় ও কেন্দ্রীয় দুই ভাবেই হয়ে থাকে। আইবুপ্রোফেন সাইক্লোঅক্সিজিনেস এনজাইমের একটি শক্তিশালী প্রতিবন্ধক।

তাই ইহা প্রোস্টাগ্লান্ডিন এর সংশ্লেষণ উল্লেখযোগ্য পরিমানে কমিয়ে দেয়। আইবুপ্রোফেন লাইপোক্সিজিনেজ দ্বারা উৎপন্ন যৌগ সংশ্লেষণে বাধা প্রদান করে।

সুতরাং ইহা দ্রুত ব্যাথা এবং আড়ষ্ঠতা উপশম করে ,ফোলা কমায় এবং আর্থাইটিস রোগীদের ভিবিন্ন অস্থিসন্দির সচলতার উন্নতি ঘটায়

নির্দেশনা 

আইবুপ্রোফেন রিউমাটয়েড আর্থাইটিস,অস্টিও আর্থাইটিস,গাউটি আর্থাইটিস,জুভেনাইল পলিআর্থাইটিস,এনকাইলোজিং স্প্ৰন্ডিলাইটিস,সাইনুভাইটিস, কোমর ব্যাথা,ডিসমেনোরিয়া,জ্বর,মাইগ্রেন,নরম কোষকলার আঘাত এবং দাঁত ব্যাথ ও পেশির প্রদাহে নির্দেশিত। 

মাত্রা ও ব্যাবহার বিধি 

প্রাপ্তবয়স্কঃ ৪০০ মি :গ্রা : দিনে ৩ বার। দৈনিক মাত্রা সর্বোচ্চ ২৪০০ মি :গ্রা : এর বেশি দেয়া উচিত নয়। 

শিশু: দৈনিক ২০ মি :গ্রা :/প্রতি কেজি শারীরিক ওজন হিসাবে বিভক্ত মাত্রায়। এই মাত্রা প্রাপ্তির জন্য সাসপেনশন ব্যাবহার করে নিম্ন লিখিত বয়স ভিত্তিক সেবন মাত্রা অনুসরণ করা যেতে পারে। 

  • ১-২ বৎসর :  দৈনিক ২.৫ মি :গ্রা :(৫০ মি :গ্রা 🙂 ৩-৪ বার। 
  • ৩-৭ বৎসর :  দৈনিক ৫ মি :গ্রা :(১০০ মি :গ্রা 🙂 ৩-৪ বার। 
  • ৮-১২ বৎসর :  দৈনিক ১০ মি :গ্রা :(২০০ মি :গ্রা 🙂 ৩-৪ বার। 
  • ৭ কেজির কম ওজনের শিশুদের জন্য নির্দেশিত নয়। জুভেনাইল রিউমাটয়েড আর্থাইটিসের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ ৪০ মি :গ্রা :/কেজি শারীরিক ওজন হিসাবে দৈনিক বিভক্ত মাত্রায় দেয়া যেতে পারে। অথবা চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী সেবন। 

প্রতিনির্দেশনা 

আইবুপ্রোফেন এর প্রতি অতিসংবেদনশীল রোগীদের ক্ষেত্রে এই ঔষধ প্রতিনির্দেশনা। এছাড়া যাদের সক্রিয় মারাত্বক পেপটিক আলসার রয়েছে, তাদের ক্ষেত্রে এটি দেয়া যাবেনা। 

গর্ভাবস্থায় ও স্তন্যদানকালে 

আইবুপ্রোফেন গর্বাবস্থায় ও স্তন্যদানকালে ব্যাবহার করা উচিত নয়। 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *